প্যারিস হিলটন, যৌননিগ্রহ, হলিউড অভিনেত্রী

কিশোরী বয়সে যৌননিগ্রহের শিকার হয়েছিলেন প্যারিস হিলটন

কিশোরী বয়সে এক আবাসিক চিকিৎসা কেন্দ্রে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন বলে মার্কিন কংগ্রেসে জানালেন মার্কিন গায়িকা ও অভিনেত্রী প্যারিস হিলটন।

এর আগে নিউইয়র্ক টাইসমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারেও বিষয়টি তুলে ধরেছিলেন প্যারিস হিলটন। এবার মার্কিন কংগ্রেসেও বিষয়টি তুলে ধরলেন তিনি।

দীর্ঘদিন ধরে শিশু-কিশোরদের অধিকার নিয়ে কাজ করছেন ৪৩ বছর বয়সী এই তারকা। গতকাল বুধবার মার্কিন কংগ্রেসের হাউস ওয়েজ অ্যান্ড মিনস কমিটির এক শুনানিতে যুক্তরাষ্ট্রের আবাসিক চিকিৎসাকেন্দ্রগুলো নিয়ে প্যারিস হিলটনসহ কয়েকজন বিশেষজ্ঞ কথা বলেছেন।

প্যারিস হিলটন

প্যারিস হিলটন ইনস্টাগ্রাম থেকে

যুক্তরাষ্ট্রের হাজারো শিশু-কিশোরকে আবাসিক চিকিৎসাকেন্দ্রে পাঠানো হয়। আবাসিক বিদ্যালয়ের আদলে পড়াশোনার পাশাপাশি চিকিৎসাও করানো হয়।

মানসিক জটিলতা ও পড়াশোনায় অমনোযোগী হওয়ায় ১৫ বছর বয়সে হিলটনকেও একটি চিকিৎসাকেন্দ্রে পাঠানো হয়েছিল। সেখানে ১১ মাসের মতো ছিলেন। এই সময়টা ভয়াবহ যন্ত্রণার মধ্যে কাটিয়েছেন এই তারকা।

‘ওরা বরাবরই প্রতিশ্রুতি দেয়, শিশুদের বিকাশে কাজ করে। কিন্তু আমাকে দুই বছর ধরে স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে দেওয়া হয়নি, এমনকি জানালার বাইরে তাকাতেও দেয়নি,’ বলেন এই তারকা।

আবাসিক চিকিৎসাকেন্দ্রে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তুলে প্যারিস হিলটন শুনানিতে বলেন, ‘আমাকে জোর করে ওষুধ খাওয়ানো হয়েছিল, কর্মীরা আমাকে যৌন নির্যাতন করেছে।’

প্যারিস হিলটন

প্যারিস হিলটন ইনস্টাগ্রাম থেকে

হিলটনের অভিযোগ, এসব কেন্দ্রে শিশু-কিশোরদের নিরাপত্তার চেয়ে মুনাফাকেও বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়। কর্মী নিয়োগেও যাচ্ছেতাই ভাব রয়েছে। এ কারণে দিনের পর দিন আবাসিক কেন্দ্রে শিশু–কিশোরেরা নিপীড়নের শিকার হচ্ছেন।

শিশু-কিশোরদের নিরাপদে বেড়ে ওঠার পরিবেশ তৈরিতে যুক্তরাষ্ট্রে তরুণদের জন্য আবাসিক চিকিৎসাব্যবস্থা সংস্কারের দাবি তুলেছেন প্যারিস।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top